পোশাক শ্রমিকদের বেতনের সমান বোনাস দাবিতে মানববন্ধন

প্রকাশিত: ২:৩৯ অপরাহ্ণ, মে ১৫, ২০২০

পোশাক শ্রমিকদের বেতনের সমান বোনাস দাবিতে মানববন্ধন

ঢাকা, ১৫ মে ২০২০: পোশাক কারখানায় শ্রমিকদের বেতনের সমপরিমাণ বোনাস দেওয়ার দাবিতে মানববন্ধন করেছে গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র।

শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এই মানবন্ধনের পর সংগঠনের কর্মীরা লাল পতাকা ও প্ল্যাকার্ড হাতে মিছিলও করেন।
সংগঠনের সভাপতি মন্টু ঘোষ বলেন, পোশাক শিল্পের শ্রমিকদের বেতনের সমপরিমাণ বোনাস না দিলে দাবি আদায়ে তারা ‘আন্দোলন’ গড়ে তুলবেন।
“আমাদের এই দাবি শ্রমিকদের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠার দাবি।”
গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক জলি তালুকদারও মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন।
নারায়ণগঞ্জের ‘প্যারাডাইজ কেবলস লিমিটেড’ কারখানার শ্রমিকরা এক বছর ধরে বেতন পাচ্ছেন না অভিযোগ করে অবিলম্বে তাদের বকেয়া বেতন পরিশোধের দাবি জানান মন্টু ঘোষ।
তিনি বলেন, “এই কারখানাটি উল্লেখযোগ্য পরিমাণ ট্যাক্স দেয় সরকারকে, অথচ এক বছর যাবত শ্রমিকরা বেতন পাচ্ছে না। মালিক একেকদিন একেক রকম কথা বলে, চুক্তি করে, কিন্তু চার ভাই এক হতে পারে না। হাজার হাজার কোটি টাকা তারা ব্যাংক থেকে নিয়েছেন, হাজার হাজার কোটি টাকার সম্পদ গড়েছেন তারা।
“আমাদের শ্রমিকরা যদি আগামীকালের মধ্যে দুই মাসের বেতন না পায়, তাহলে পরশুদিন রোববার সেই কারখানার মালিকের বাড়ি ঘেরাও করা হবে।”
প্যারাডাইজ কেবলসের তিন শতাধিক শ্রমিক তাদের বকেয়া বেতনের দাবিতে গত এপ্রিলে লকডাউন ভেঙে নারায়ণগঞ্জের চাষাঢ়ায় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান।
তারা বলছেন, গত ২৬ মার্চ সরকারের সাধারণ ছুটি ঘোষণার সময় শ্রমিকদের কোন কিছু না জানিয়ে কারখানা বন্ধ করে দেওয়া হয়। অথচ তাদের এক বছরের বেতন পাওনা রয়েছে। বিভিন্ন দপ্তরে লিখিতভাবে জানিয়েও তারা প্রতিকার পাননি।
এ বিষয়ে কারখানা কর্তৃপক্ষের বক্তব্য জানতে পারেনি।

শনিবার গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্টের মানববন্ধন

গার্মেন্টস শ্রমিকদের বেতন ও শতভাগ উৎসব ভাতা ২৫ রোজার মধ্যে পরিশোধসহ বিভিন্ন দাবিতে শনিবার মানববন্ধন করবে গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট।
বেলা ১১টায় ঢাকায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এবং নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুর, চট্টগ্রামসহ সব শিল্পাঞ্চলে এই মানববন্ধন এবং প্রতীকী অবস্থান কর্মসূচি হবে বলে সংগঠনের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।
করোনাভাইরাস সঙ্কটের মধ্যে সরকারি নির্দেশনা লঙ্ঘন করে শ্রমিক ছাঁটাই বন্ধ করা, আইন ও প্রতিশ্রুতি ভঙ্গকারী মালিকদের ‘সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত’ করে শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধ, সকল শ্রমিকের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করা, সংক্রমিত শ্রমিকের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনের ব্যবস্থা করা, মহামারীতে ক্ষতিগ্রস্ত শ্রমিকের চিকিৎসা ব্যয় ও সর্বোচ্চ ক্ষতিপূরণ নিশ্চিত করার দাবিও রয়েছে গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্টের।
সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আহসান হাবিব বুলবুল ও সাধারণ সম্পাদক সেলিম মাহমুদ এক বিবৃতিতে মানববন্ধন কর্মসূচি সফল করতে নেতাকর্মীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।