নুরুল ইসলাম বাবুল ছিলেন একজন অর্থনীতির তারকা: ড. জাহিদ হোসেন, বিশ্বব্যাংকের সাবেক মুখ্য অর্থনীতিবিদ

প্রকাশিত: ৭:৩৫ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ১৪, ২০২০

নুরুল ইসলাম বাবুল ছিলেন একজন অর্থনীতির তারকা: ড. জাহিদ হোসেন, বিশ্বব্যাংকের সাবেক মুখ্য অর্থনীতিবিদ

ঢাকা, ১৪ জুলাই ২০২০: “নুরুল ইসলাম বাবুল দেশকে অনেক দিয়েছেন। স্বল্প সময়ে এত শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা এটা সহজ কথা নয়। তাও এমন কোনো প্রতিষ্ঠান নয়, যা ঝড়ের বেগে পড়ে যাবে। বরং তার প্রতিটি প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠিত। বিশ্বমানের প্রতিষ্ঠান গড়েছেন তিনি। এর মাধ্যমে শিল্পের শাখায় শাখায় রেখেছেন অবদান।

প্রচুর কর্মসংস্থান করেছেন। সংক্ষেপে বলতে গেলে বলা যায়- তিনি ছিলেন একজন অর্থনীতির তারকা।” যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলামের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে বিশ্বব্যাংকের ঢাকা অফিসের সাবেক মুখ্য অর্থনীতিবিদ ড. জাহিদ হোসেন এসব কথা বলেন।

নুরুল ইসলাম বাবুলের অকাল প্রয়াণে রাশেদ খান মেননের শোক

বিশিষ্ট শিল্পপতি, উদ্যোক্তা, যুমনা গ্রুপের চেয়ারম্যান, দৈনিক যুগান্তর ও যুমনা টেলিভিশনের মালিক জনাব নুরুল ইসলাম বাবুলের অকাল প্রয়াণে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন এমপি গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।
মেনন এক বিবৃতিতে বলেন, মুক্তিযুদ্ধ ও এরশাদ স্বৈরাচারবিরোধী সংগ্রামের সময় তার ভূমিকার কারণে দেশের গণতান্ত্রিক শক্তিসমূহের সাথে তার একটি গভীর সম্পর্ক গড়ে উঠে। যমুনা ফিউচার পার্কসহ বিভিন্ন উদ্ভাবনী শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ায় তিনি অনন্য ভূমিকা পালন করেছেন।
মেনন তার স্ত্রী সালমা ইসলাম এমপিসহ পরিবারের সকল সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

নুরুল ইসলাম বাবুলের মৃত্যুতে সৈয়দ অামিরুজ্জামানের শোক

দৈনিক যুগান্তর ও যমুনা টেলিভিশনের প্রতিষ্ঠাতাসহ যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম বাবুলের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির মৌলভীবাজার জেলা সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য, অারপি নিউজের সম্পাদক ও বিশিষ্ট কলামিস্ট সৈয়দ অামিরুজ্জামান।

নুরুল ইসলাম বাবুলের মৃত্যুতে তরীকত ফেডারেশন ও অাহলে সুন্নত ওয়াল জামাতের শোক

বিশিষ্ট শিল্পপতি, উদ্যোক্তা, যুমনা গ্রুপের চেয়ারম্যান, দৈনিক যুগান্তর ও যুমনা টেলিভিশনের মালিক জনাব নুরুল ইসলাম বাবুলের অকাল প্রয়াণে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ তরীকত ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় যুগ্ম প্রচার সম্পাদক ও অাহলে সুন্নত ওয়াল জামাতের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এবং রহমান পুর দরবার শরীফের গদ্দীনশীন পীর শাহজাদা সৈয়দ রায়হান শাহ রহমানপুরী।

রাজধানীর এভার কেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার বিকালে যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও তিন মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

তার মৃত্যুতে দেশের শিল্প খাতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। ব্যবসায়ীরা বলছেন, বড় অসময় চলে গেলেন তিনি। করোনার সংকট কাটিয়ে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও আধুনিক বাংলাদেশ বিনির্মাণে তার মতো উদ্যোক্তার খুবই দরকার ছিল। এ সময় তার চলে যাওয়া দেশের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি।

গত ১৪ জুন নুরুল ইসলামকে এভার কেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার কিডনি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। বিশিষ্ট এই শিল্পোদ্যোক্তার চিকিৎসায় এভার কেয়ারের ডা. ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) মাহবুদের নেতৃত্ব ১০ সদস্যবিশিষ্ট মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়।

এর বাইরে চীনের ৪ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক এবং সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালের দুই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক টেলিকনফারেন্সের মাধ্যমে পরামর্শ দিয়েছেন।

তার স্ত্রী সাবেক মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বর্তমান জাতীয় সংসদের এমপি সালমা ইসলাম। ছেলে শামীম ইসলাম যমুনা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, তার তিন মেয়ে- সোনিয়া ইসলাম, মনিকা ইসলাম এবং রোজালিন ইসলাম যমুনা গ্রুপের পরিচালক।