আবাসিক হল খুলে দেয়ার দাবি ইবি ছাত্রমৈত্রী ও ছাত্র ইউনিয়নের

প্রকাশিত: ২:৩০ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৬, ২০২০

আবাসিক হল খুলে দেয়ার দাবি ইবি ছাত্রমৈত্রী ও ছাত্র ইউনিয়নের

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি (কুষ্টিয়া), ২৬ ডিসেম্বর ২০২০ : আবাসিক হল বন্ধ রেখে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন। প্রশাসনের এ সিদ্ধান্তকে অযৌক্তিক অাখ্যায়িত করে পরীক্ষার্থীদের জন্য আবাসিক হল খুলে দেয়ার দাবি জানিয়েছে ছাত্রমৈত্রী ও ছাত্র ইউনিয়ন।

পৃথক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে সংগঠন দুটি এ দাবি জানায়। এছাড়া সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে সাধারণ শিক্ষার্থীরাও এ দাবি জানিয়েছে।

বাংলাদেশ ছাত্রমৈত্রীর বিশ্ববিদ্যালয় শাখা সভাপতি আব্দুর রউফ ও সাধারণ সম্পাদক মুতাসিম বিল্লাহ পাপ্পু স্মাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আবাসিক সুবিধা ছাড়া পরীক্ষা গ্রহণ করলে শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন জায়গা থেকে এসে পরীক্ষা দিবে। এতে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের বিস্তার বাড়বে। শিক্ষার্থীদের সুবিধার্থে স্বাস্থ্যবিধি মেনে আবাসিক হল খুলে দিয়ে পরীক্ষা গ্রহণ করলে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যঝুকিও তেমন কমবে।

ছাত্র ইউনিয়ন বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের সভাপতি নুরুন্নবী সবুজ ও সাধারণ সম্পাদক জি. কে. সাদিক স্মাক্ষরিত সংবাদ বিবৃতিতে বলা হয়, আবাসিক হল বন্ধ রেখে পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্তটি অযৌক্তিক ও অবিবেচনাপ্রসূত। বিশ্ববিদ্যালয়ের হল বন্ধ আবার পাশ্ববর্তী এলাকায় আবাসন সুবিধা পর্যাপ্ত নেই। ফলে আবাসন নিয়ে চরম ভোগান্তির শিকার হবে শিক্ষার্থীরা। এছাড়ও মেসে একই রুমে একাধিক শিক্ষার্থী থাকলে সেখানেও করোনা সংক্রমিত হওয়ার শঙ্কা আরও বেশি। তাই আবাসন সুবিধা নিশ্চিত করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন পরীক্ষা গ্রহণ করবে বলে আমরা প্রত্যাশা করি।

এবিষয়ে ভিসি অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম বলেন, শিক্ষার্থীদের দাবির সাথে আমরাও একমত। কিন্তু অভিভাবকত্বের জায়গা থেকে আমাদের বিষয়টি ভাবতে হচ্ছে। অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় বিশ্ববিদ্যালয়ের দিকে আমরা লক্ষ্য রাখছি। এছাড়া বিষয়টি নিয়ে উর্ধতন কতৃপক্ষের সাথে কথা বলব।’

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ১১৯তম একাডেমিক কাউন্সিল সভায় আবাসিক হল বন্ধ রেখে স্নাতক শেষ বর্ষ ও স্নাতকোত্তর চূড়ান্ত পরীক্ষা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এরপর থেকেই হল খুলে দিয়ে পরীক্ষা নেওয়ার দাবিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিবাদ করছে শিক্ষার্থীরা।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ