সংস্কৃতিকর্মী শিল্পী রানী নাগ-এর চিকিৎসা সহায়তায় সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা আজ

প্রকাশিত: ৯:৪৭ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ৩, ২০২১

সংস্কৃতিকর্মী শিল্পী রানী নাগ-এর চিকিৎসা সহায়তায় সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা আজ

শেরপুর (মৌলভীবাজার), ০৩ মার্চ ২০২১ : অকালে স্বামীহারা নিবেদিত প্রাণ এক সংস্কৃতিকর্মী শিল্পী রানী নাগ-এর দুটি কিডনিই অকার্যকর হওয়ায় চিকিৎসা সহায়তায় সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার আয়োজন করা হয়েছে আজ।

অন্ধজনে দেহ আলো,
মৃত জনে দেহ প্রাণ , ,
মানুষ মানুষের জন্য – একজন শিল্পীকে বাঁচতে এগিয়ে আসুন।- এই আহবান নিয়ে লোকগানের দল ‘চিরন্তনী’ এবং মৌলভীবাজার ও হবিগঞ্জের বরেণ্য শিল্পীদের পরিবেশনায় শ্রীহট্ট সাহিত্য সংসদ ও শেরপুর সাংস্কৃতিক জোটের উদ্যোগে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে সকলের অংশগ্রহণ ও সহযোগিতা প্রত্যাশা করেছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির মৌলভীবাজার জেলা সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্য, আরপি নিউজের সম্পাদক ও বিশিষ্ট কলামিস্ট সৈয়দ আমিরুজ্জামান।

শিল্পের মৃত্যু নেই, কিন্তু এই মৃত্যু যে
শিল্পীর দুয়ারে প্রায়শই কড়া নাড়ে।
———————————————
…এক স্বপ্নবাজ তরুণী নাটক করে বেড়াতেন দোর্দণ্ড প্রতাপে, গলা উঁচিয়ে গান ধরতেন সামাল সামাল রবে, যখন তার ত্রিসীমানায় কেউ বাড়ির বাইরে বা পাশের ইউনিয়নে বা নিকটস্থ উপজেলায় যাওয়াটাকেই দুরূহ বা অজ্ঞাতকুলশীলের কাজ মনে করতেন সকলে। হ্যাঁ। বলছিলাম শিল্পী রাণী নাগ-এর কথা। শেরপুরের লাগোয়া এক বর্ধিষ্ণু এলাকা সরকারবাজারের এই অসমসাহসী কন্যা মৌলভীবাজার জেলার দক্ষ নাটুয়াদের নাট্য সংগঠন ‘জীবনচক্র’ থিয়েটারেও নাটক করে গেছেন সমানতালে। বিয়েও হয়েছিল। সেই সুখের সংসারে দুটো ফুটফুটে মেয়েও এসেছিল। কিন্তু বিধিবাম। অকালে মারা গেলেন শিল্পীরাণীর স্বামী। সংসার চালাতে গিয়ে অনন্যোপায় হয়ে চলে আসেন বাপের বাড়িতে। কিন্তু এ বাড়িরও যে নুন আনতে পান্তা ফুরোয়। তাই দুঃখও তার ছায়া হয়ে আবাস গাড়ে তারই ছোট্ট কুড়েঘরে। একদিন দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত হন শিল্পী রাণী নাগ নিজেও। দুটো কিডনিই তার বিকল হবার পথে। চলছে ডায়ালাইসিস। এরকম এক দুস্থ প্রতিভাবান শিল্পীর পাশে দাঁড়াতে চাইছেন স্বনামধন্য সাংবাদিক Nurul Islam ও প্রথিতযশা শিল্পী Mir Yousuf Ali । তার চিকিৎসার্থে একটা ফান্ড রেইজিং প্রোগ্রামের আয়োজন করেছেন তাঁরা শেরপুরের আজাদবখত স্কুলে ‘শ্রীহট্ট সাহিত্য সংসদ’ ও ‘শেরপুর সাংস্কৃতিক জোট’-এর পৃষ্ঠপোষকতায়। থাকবো আমরাও। গান গাইবেন দরাজগলার শিল্পী Suranjit Suron, শিল্পী ও সাধক Joydip Roy Raju, সব্যসাচী নাট্যব্যক্তিত্ব Nirbendu Nirdhut। দোতারায় পল্লীর সহজিয়া তান তুলবেন Rothindra Biswas Rothi, তবলায় বোল তুলবেন বেশুমার Nepal Bhaskor। বাজাবেন হারমোনিয়ামের যাদুকর Bapon Paul। আরো থাকবেন গানের অত্র এলাকার শিরোমণিরা। কাল সন্ধ্যায় সেই মনোজ্ঞ অনুষ্ঠানে থাকতে পারেন আপনিও যদি হাজারো কাজের ভিড়ে একটু ফুরসত বের করে ফেলতে পারেন। আপনার একটু অর্থ-সাহায্য, একটু হৃদয়নিঃসৃত ভালোবাসা—হয়তো এই অপরাজেয় শিল্পীকে দেখিয়ে দেবে বাঁচার নতুন দিশা, জীবনজয়ের অমৃত-সোপান। [কপি]

ঋণ স্বীকার: বিনেন্দু ভৌমিক