ভাত দেয়ার মুরোদ নাই কিলমারার গোঁসাই

প্রকাশিত: ২:১০ অপরাহ্ণ, জুন ২৮, ২০২১

ভাত দেয়ার মুরোদ নাই কিলমারার গোঁসাই

নিজস্ব প্রতিবেদক | সৈয়দপুর (নীলফামারী), ২৮ জুন ২০২১ : ইঞ্জিনে রূপান্তর করা রিকশা-ভ্যান বন্ধ এবং ইজিবাইক নিয়ন্ত্রনের সরকারের তুঘলকি সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে সৈয়দপুর ওয়ার্কার্স ফেডারেশনের বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা কমরেড রুহুল আলম মাষ্টার বলেন, করোনাকালে আড়াই কোটি দারিদ্র্য মানুষের পাশাপাশি দেশে কর্মসংকটে প্রায় ৫০ ভাগের উপরে মানুষ দারিদ্র্য সীমার নিচে চলে গেছে। কর্মহীনতার এই বেসামাল পরিস্থিতিতে সরকার কোন কর্মসৃজন করতে পারছেনা। উল্টো পাটকল,চিনিকল বন্ধ করে দিয়ে সরকার পরিস্থিতিকে অসহনীয় করে তুলেছে। আমলা ও বেসরকারি লুটেরা পুঁজিবাদী শ্রেণীর স্বার্থে একই কায়দায় এবার হাত দিয়েছে আত্মকর্মসংস্থানে নিয়োজিত ৫০ লাখ মানুষের জীবন ও জীবিকার ওপর। ব্যাটারিচালিত রিকশা, ভ্যান, ইজিবাইক, নসিমন ও করিমনের সাথে শুধু ৫০ লাখ মানুষজন যুক্ত নন, ৫০ লাখ পরিবারের দেড় কোটি মানুষের জীবন এসব পেশার উপার্জনের সাথে যুক্ত। এদের পেটে লাথি মারলে এরা পরিবার পরিজনসহ বসে থাকবেনা। বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে এরকম তুঘলকি সিদ্ধান্ত কেউ নিতে পারতোনা। ”ভাত দেয়ার মুরোদ নাই, কিল মারার গোঁসাই”- এমন অপরিণামদর্শী সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের জন্য কমরেড রুহুল আলম প্রধানমন্ত্রী’র জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

সোমবার (২৮ জুন ২০২১) নীলফামারীর রেল শহর সৈয়দপুর প্রেসক্লাব চত্ত্বরে শ্রমিক ফেডারেশন আয়োজিত বিক্ষোভপূর্ব এক সমাবেশে তিনি একথা বলেন।
যুবমৈত্রী নেতা ওবায়দুর সরকারের সঞ্চালনায় প্রতিবাদ সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন ওয়ার্কার্স পার্টি নীলফামারী জেলা সাধারণ সম্পাদক কমরেড আবেদ হোসেন, শ্রমিক ফেডারেশন নেতা তোফাজ্জল হোসেন, অটোরিকশা শ্রমিক নেতা লুৎফর রহমান ও যুব নেতা নন্দকুমার।সভার প্রস্তাবে সরকারের আমলা-ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট কর্তৃক গণবিরোধী তুঘলকি সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার, বুয়েট প্রস্তাবিত ব্রেকসহ ব্যাটারিচালিত রিকশা, ভ্যান , ইজিবাইক রাস্তায় চলতে দেয়া এবং লকডাউন সময়কালে এ পেশায় কর্মরত ৫০ লাখ কর্মজীবীকে খাদ্য ও অন্যান্য প্রণোদনা প্রদানসহ এদের সকলকেই দ্রুত বিনামূল্যে করোনার টিকা দেয়ার দাবি জানানো হয়।
প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভাবন দ্বারা মটরচালিত রিক্সাগুলোকে নিরাপদ ও জনগণের বাহন উপযোগী করে পরিবেশ বান্ধব যাতায়তের ব্যবস্থা গ্রহণের এবং জীবিকার বিকল্প ব্যবস্থা না করে রিক্সা ও ভ্যানচালকদের উচ্ছেদ বন্ধের আহবান জানিয়েছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির মৌলভীবাজার জেলা সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্য, আরপি নিউজের সম্পাদক ও বিশিষ্ট কলামিস্ট সৈয়দ আমিরুজ্জামান।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ