শ্রীমঙ্গলে শিক্ষা কর্তৃপক্ষের সাথে মাল্টি স্টেকহোল্ডার সভা ও বর্ণমালায় নীতিকথা বই বিতরণ

প্রকাশিত: ২:০০ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৪, ২০২১

শ্রীমঙ্গলে শিক্ষা কর্তৃপক্ষের সাথে মাল্টি স্টেকহোল্ডার সভা ও বর্ণমালায় নীতিকথা বই বিতরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক | শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার), ২৪ নভেম্বর ২০২১ : অাজ বুধবার (২৪ নভেম্বর ২০২১) বেলা ১১টায় শ্রীমঙ্গলে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)’র অনুপ্রেরণায় গঠিত সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক), উপজেলা শিক্ষা অফিসের যৌথ আয়োজনে এবং উপজেলা প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতায় টিঁআইবি’র এরিয়া কো-অর্ডিনেটর পারভেজ কৈরী’র সঞ্চালনায় উপজেলা শিক্ষা কর্তৃপক্ষের সাথে মাল্টি স্টেকহোল্ডার সভা অনুষ্ঠিত ও সনাকের বিশেষ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে বর্ণমালায় নীতিকথা বই বিতরণ করা হয়।

ভিক্টোরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক, সনাকের সভাপতি, কবি ও লেখক দ্বীপেন্দ্র ভট্টাচার্যের সভাপতিত্বে শিক্ষা খাতে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে আয়োজিত এ মাল্টি স্টেহোল্ডার সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার নজরুল ইসলাম।
বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন শিক্ষা অফিসার জাফর আল-সাদেক ও সহকারি শিক্ষা অফিসার আবুল হাসনাত মো. জহিরুল ইসলাম ভূঁইয়া।
তাঁরা করোনাকালীন সংকট মোকাবেলায় শ্রীমঙ্গল উপজেলা শিক্ষা অফিস কর্তৃক গৃহিত বিভিন্ন কর্মসূচি ও উদ্যোগ তুলে ধরে বলেন যে সংকটকালীন সময়ে তাদের নানান উদ্যোগের মাধ্যমে প্রায় ৯৫ শতাংশ ছাত্র-ছাত্রীর সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়েছে। করোনাকালে শ্রীমঙ্গল এর অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রম এবং ওয়ার্কশীট তৈরী ও বিতরণ বেশ প্রশংসার দাবী রাখে। ছাত্র-ছাত্রীদের একাডেমিক পড়ালেখার সাথে যুক্ত রাখার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের মানসিক সুস্থতা নিশ্চিতে কাজ করছে উপজেলা শিক্ষা অফিস ও শিক্ষক শিক্ষিকাবৃন্দ।
এছাড়া বরুনা ফয়জুর রহমান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সহকারি শিক্ষক শিক্ষিকাবৃন্দ জানান যে তাঁরা শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি অভিভাবকদের সাথে মোবাইল ফোনে নিয়মিত যোগাযোগ এবং শিক্ষকগণ শিক্ষার্থীদের হোম ভিজিট অব্যাহত রেখেছেন।
এ মতবিনিময় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন উদয়ন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সনাকের শিক্ষা বিষয়ক উপ-কমিটির আহবাক কবিতা রানী দাস।
এছাড়া আরও বক্তব্য দেন শ্রীমঙ্গল প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সনাক সদস্য সৈয়দ নেসার আহমদ, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির মৌলভীবাজার জেলা সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্য, অারপি নিউজের সম্পাদক ও বিশিষ্ট কলামিস্ট কমরেড সৈয়দ অামিরুজ্জামান, বরুনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুশান্ত কুমার পাল, উত্তর ভাড়াউড়া সপ্রাবি’র প্রধান শিক্ষক কল্যান দেব, স্বজন আহবায়ক দেলোয়ার হোসেন মামুন, স্বজন সদস্য নিতেশ সূত্রধর প্রমুখ।
আলোচনায় নিয়মিত ও করোনাকালীন সংকটে শিক্ষার্থীদেরকে শিখন প্রক্রিয়ার সাথে যুক্ত রাখতে জাতীয়ভাবে গৃহীত কার্যক্রমসমূহে সর্বোচ্চ সংখ্যাক শিক্ষার্থীকে সম্পৃক্ত করার লক্ষ্যে শিক্ষক কর্তৃক শিক্ষার্থীদেরকে উদ্বুদ্ধ করার কাজটি আরো গতিশীল করা; বিশেষ করে শ্রীমঙ্গল উপজেলার দুর্গম, চা বাগান এবং পাহাড়ী এলাকার শিক্ষার্থীদের সাথে যোগাযোগ নিশ্চিত করার বিষয়ে গুরুত্ব আরোপ করেন। চলমান সময়ে শিক্ষকদের হোম ভিজিট সংক্রান্ত, বিভিন্ন উন্নয়ন তহবিলের বরাদ্দ সম্পর্কিত, বরুনা ফয়জুর রহমান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের গত՜ভরাট এবং খেলার মাঠ তৈরী সংক্রান্ত, জেন্ডার বান্ধব/জেন্ডার সম্পর্কিত ইস্যু, এসএমসি’র কার্যকারিতা বৃদ্ধি এবং বিদ্যালয়ে সদস্যদের উপস্থিতি নিশ্চিতকরণ, দায়-দায়িত্ব সংক্রান্ত বর্তমান পরিপত্র বিষয়ক প্রশিক্ষণ আয়োজন, উপজেলার শিক্ষা অফিস সহ উপজেলার সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তথ্য সংরক্ষণ, হালনাগাদকরণ এবং উন্মুক্তকরণের জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত তথ্যকর্মকর্তা নিয়োগর জন্য চিঠি ইস্যু, উপজেলা শিক্ষা অফিস শ্রীমঙ্গল এর ওয়েব পোর্টাল এর তথ্য সমূহ আপডেট রাখা এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয়ের একান্ত প্রচেষ্টায় কোমলমতি শিশুদের মধ্যে নৈতিক শিক্ষার বিস্তার ঘটাতে সংগৃহিত বর্ণমালায় নীতিকথা বইটি শিক্ষা কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এছাড়া বরুনা ফয়জুর রহমান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিস কর্তৃক কার্যকর মনিটরিং ব্যবস্থা আরো বাড়ানো এবং উল্লিখিত গর্ত ভরাটের জন্য প্রধান শিক্ষককে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও শিক্ষা কর্মকর্তা বরাবর একটি আবেদন করার জন্য অনুরোধ করা হয়।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার নজরুল ইসলাম বলেন সনাক সব সময় আমাদেরকে দিক নির্দেশনা দিয়ে থাকেন। আজকের আলোচনায় যে বিষয়গুলো উঠে এসেছে এগুলো উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা অবশ্যই এড্রেস করবেন বলে আমি মনে করি। তিনি বলেন সনাক শ্রীমঙ্গল কোমলমতি শিক্ষার্থীদের জন্য টিআাইবি কর্তৃক তৈরীকৃত বর্ণমালায় নীতিকথা বইটি উপজেলার সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকদের হাতে তুলে দেয়ার জন্য যে সুপারিশ ও প্রস্তাবনা দিয়েছিলেন তা আজ কার্যকর করা হয়েছে। আমি বর্ণমালায় নীতিকথা বইটি শ্রীমঙ্গল উপজেলার সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নিয়মিত পাঠদান এবং এর যথাযথ সংরক্ষণ এর জন্য চিঠি ইস্যূ করেছি এবং এই বিষয়ে শ্রীমঙ্গল উপজেলার সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সম্মানিত শিক্ষক এবং প্রধান শিক্ষকবৃন্দের একান্ত সহযোগিতা কামনা করছি। এসময় তিনি প্রাথমিক শিক্ষাখাতের সকল উন্নয়ন কার্যক্রম যথাযথভাবে সম্পন্নকরণে উদ্যোগ গ্রহণ এবং ব্যয় কার্যক্রমের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার বিষয়েও কাজ করবেন বলে উল্লেখ করেন। সবশেষে সনাকের পক্ষ থেকে ১১ দফা সুপারিশ তুলে ধরেন সনাক সভাপতি দ্বীপেন্দ্র ভট্টাচার্য।
অনুষ্ঠানটির সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন ইয়েস গ্রুপ সনাক শ্রীমঙ্গল।