ওমিক্রন প্রতিরোধে কঠোর বিধিনিষেধ প্রয়োগ ও কার্যকর করার দাবী সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলনের

প্রকাশিত: ৩:৩৯ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩, ২০২১

ওমিক্রন প্রতিরোধে কঠোর বিধিনিষেধ প্রয়োগ ও কার্যকর করার দাবী সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলনের

নিজস্ব প্রতিবেদক | ঢাকা, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১ : “নতুন করে করোনা মহামারী বিশ্বব্যাপী ব্যাপক বিস্তার আতঙ্ক ছড়াচ্ছে তা গভীর উদ্বেগ সৃষ্টি করছে আমাদের মতো দেশগুলোতে। এই অবস্থায় কঠোরভাবে প্রাথমিক বিধিনিষেধ সমুহ বিশেষ করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বরাদ দিয়ে প্রকাশিত বিধিমালা অনুশীলনের উপর জোর দিতে হবে। এই বিষয়ে সরকার ও প্রশাসনের আন্তরিক সদিচ্ছা এবং জনসাধারণের সচেতনতার বিষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বিগত সময়গুলোতে করোনা বিপর্যয়ে প্রাণহানির পাশাপাশি উৎপাদন, বন্টন, শিল্প, বাণিজ্য, শিক্ষা-ব্যবস্থাসহ সবকিছুতেই বড় ধরনের প্রভাব পড়েছে। এই বিপর্যয় কাঠিয়ে উঠার জন্য ‘ওমিক্রন’ নামক ভাইরাস প্রতিরোধে আমরা সর্বোচ্চ সতর্কতা আশা করি।

অন্যদিকে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর বছরের শেষ সময়ে এবারের বিজয় দিবসের পূর্বে আমরা মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতাকারী পাকিস্তানের দোসর জামাত-শিবিরসহ সকল ধর্মান্ধ রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবি জানাচ্ছি।”
আজ শুক্রবার (৩ ডিসেম্বর ২০২১) বিকেল ৪টায় সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন কার্যালয়ে সংগঠনের ঢাকাস্থ সংগঠকদের এক মতবিনিময়সভায় নেতৃবৃন্দ উপরোক্ত মন্তব্য করেন।
সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতা আব্দুল ওয়াদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন সাধারণ সম্পাদক সালেহ আহমেদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক একে আজাদ, সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য অলক দাশ গুপ্ত, এডভোকেট পারভেজ হাসেম, বিপ্লব চাকমা, কেন্দ্রীয় নেতা নুরুল আমিন, বেলায়েত হোসেন, ঢাকা মহানগর নেতা জুবায়ের আলম, আলমগীর তালুকদার, গোলাম কিবরিয়া, আলীমুজ্জামান, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ (বিসিএল) সভাপতি গৌতম শীল প্রমুখ।
সভায় আরো বলা হয়, সাম্প্রতিক সময়ে দেশে ঘটে যাওয়া সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সমুহের বিচার দ্রুততর সময়ে করার পাশাপাশি সকল ধর্মীয় সংখ্যালঘু, আদিবাসী, নারী ও শিশু নিপীড়নের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ভিত্তিক বৈষম্যহীন সমাজ গড়ার কাজকে অগ্রসর করে নেবার স্বার্থে শিক্ষা ব্যবস্থাকে একমুখী অসাম্প্রদায়িক ও বিজ্ঞানভিক্তিক করতে হবে। করোনার মহাবিপর্যয়ে কাজহারা মানুষদের বিকল্প কাজের ব্যবস্থা করতে হবে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ