১০ দফা দাবিতে সীতাকুণ্ডে পাটকল শ্রমিকদের বিক্ষোভ

প্রকাশিত: ৭:৪২ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ২৬, ২০২০

১০ দফা দাবিতে সীতাকুণ্ডে পাটকল শ্রমিকদের বিক্ষোভ

সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম), ২৬ জুলাই ২০২০ : বকেয়া বেতন পরিশোধ, ঈদ বোনাসসহ ১০ দফা দাবিতে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করেছে রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল হাফিজ জুট মিলের শ্রমিকেরা।

শনিবার (২৫ জুলাই) সকাল ১০টায় উপজেলার বার আউলিয়া এলাকায় এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
এতে বক্তারা বলেন, সম্প্রতি দেশে ২৫টি রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। সেখানে দীর্ঘদিন বকেয়া থাকা শ্রমিকদের সমস্ত পাওনা বুঝে না দিয়ে কর্তৃপক্ষের কোনো সদোত্তর জানায়নি। সামনে কয়েকদিন পর ঈদুল আযহা। এতে বেতন ভাতা না পেয়ে পরিবার-পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন কর্মরত পাটকল শ্রমিকরা। এছাড়া বিজেএমসি’র এমন আচরণে জুট মিলের শ্রমিকদের মধ্যে চরম হতাশা ও উত্তেজনা বিরাজ করছে।

জানতে চাইলে বাংলাদেশ পাটকল জাতীয় শ্রমিকলীগ নেতা ও হাফিসজুট সিবিএ সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম বলেন, শ্রমিকদের দৈনিক হাজিরার ভিত্তিতে এক বছরে ১৬০ দিন কাজ করলে পূর্ণ বোনাস ও আর ৮০দিন কাজ করলে বোনাস অর্ধেক বোনাস পাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু বিজেএমসি অন্যায়ে আচরণে শ্রমিকদের মধ্য চাপা ক্ষোভ ও হতাশা বিরাজ করছেন। আগামী ৭২ ঘন্টা মধ্য সমস্ত পাওয়া বুঝে না দিলে আরও কঠোর কর্মসূচি দেওয়ার হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন তিনি।

এদিকে পাটকল শ্রমিকদের ১০ দফা দাবির মধ্যে রয়েছে- ২৫ মার্চ থেকে ৫ এপ্রিল পর্যন্ত বদলি, অস্থায়ী, দৈনিকভিত্তিক ক্যাজুয়েল শ্রমিকদের সাধারণ ছুটির মজুরি দেওয়া, মজুরি কমিশন ২০১৫ অনুযায়ী বদলি, অস্থায়ী, দৈনিকভিত্তিক ও ক্যাজুয়েল শ্রমিকদের গ্রেড ভিক্তিক মূল মজুরি অনুযায়ী বোনাস প্রদান, সকল বকেয়া ও সপ্তাহের মজুরি ঈদের বন্ধের আগে দেওয়া, স্থায়ী শ্রমিকদের ন্যায়সঙ্গতভাবে বদলি, অস্থায়ী, দৈনিকভিক্তিক ও ক্যাজুয়েল শ্রমিকদের বৈশাখী ভাতা প্রদানসহ মজুরি কমিশন ২০১৫ চালু হওয়ার পূর্বের প্রাপ্য বকেয়া মজুরি প্রদান করা।

বিষয়টি নিশ্চিত করে সীতাকুণ্ড থানার অফিসার ইনচার্জ ফিরোজ হোসেন মোল্লা বলেন, ‘মানববন্ধনকে ঘিরে অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে সেখানে ব্যাপক নিরাপত্তা জোরদার করা হয়। ৩০ মিনিট পর্যন্ত সড়কে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালন করেছে শ্রমিকরা।’